Home / মিডিয়া নিউজ / স্ত্রী-সন্তানদের কথা লুকিয়ে সম্পর্ক, সইফকে ছেড়ে চলে যান বিদেশি সুন্দরী

স্ত্রী-সন্তানদের কথা লুকিয়ে সম্পর্ক, সইফকে ছেড়ে চলে যান বিদেশি সুন্দরী

বলিউড মানে যেন খানদের রাজত্ব তাদের আধিপত্য বিস্তার করে আছে বলিউডে আর থাকবেই বা

কেন দুর্দান্ত অভিনয় আর ব্যক্তিত্ব দিয়ে তারা নিজেদেরকে উঠিয়ে এনেছে অনন্য এক উচ্চতায়

বলিউডের কিংবদন্তি যারা অভিনয় করেছেন তাদের মধ্যে অভিনেতা শাহরুখ খান সালমান খান আমির

খান এদেরকেই মূলত সবাই বুঝে থাকে কিন্তু এছাড়াও আরো অনেকেই রয়েছে যারা জনপ্রিয়তা একটু

পিছিয়ে পড়লেও বলিউডে তাদের অবদান কম নয় এর মধ্যে একজনের নাম না বললেই নয় তিনি হচ্ছেন পতৌদির ছোট নবাব সাইফ আলি খান ক্যারিয়ারে অসংখ্য সিনেমা কেনি করেছেন বিশেষ করে নব্বইয়ের দশকের সিনেমাগুলো তার ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করেছিল তবে বর্তমান সময়ে এসে তিনি অভিনয় থেকে বেশ দূরে রয়েছেন এবং ওয়েব সিরিজের কাজগুলোতে মাঝেমধ্যে দেখা যাচ্ছে তাকে তাকে নিয়মিত ভাবে যে তিনি অভিনয় করছেন সেটি বলা হচ্ছে না

সইফ আলি খানের পঞ্চাশ বছরের জন্মদিন বলে কথা! স্ত্রী করিনা কাল রাত থেকেই ’হাবি’-র জন্মদিন পালনে মেতেছেন। কখনও আদরে জড়িয়ে ধরছেন সেফকে, আবার কখনও বা ঠোঁটে এঁকে দিচ্ছেন সোহাগী চুমু। কাপ্তানের ভেতর দিয়ে উঁকি দিচ্ছেন তাঁর বেবিবাম্প।

সইফের এই পঞ্চাশ বছরে বসন্ত এসেছে অনেক বার। বয়সে ১০ বছরের বড় অমৃতার সঙ্গে প্রেম-বিয়ে-বিচ্ছেদের পর ১০ বছরের ছোট করিনার সঙ্গে প্রেম-বিয়ের কথা তো সকলেরই জানা। কিন্তু এই দুইয়ের মাঝেও যে সইফের জীবনে প্রবেশ ঘটেছিল অন্য এক নারীর, তা কি আপনি জানতেন? তবে সেই সম্পর্ক শেষ হয়েছিল তিক্ত ভাবে। প্রকাশ্যে সেফের ইমেজের উপর পড়েছিল কালো দাগ। কী তাঁর নাম?

সেই সুন্দরীর নাম রোজা ক্যাটালানো। আদপে ইতালির এই মেয়ে বড় হয়েছিলেন সুইজারল্যান্ডে। অমৃতার সঙ্গে ২০০৪-এ বিচ্ছেদের পর রোজার সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান সইফ। কী প্রেম তখন তাঁদের! পার্টিতে, সেটে সবসময়েই একসঙ্গে দেখা যেত সইফ-রোজাকে। কেনিয়ায় দেখা হওয়ার পর থেকে রোজার জীবনের সঙ্গে অঙ্গাঙ্গী ভাবে জড়িয়ে গিয়েছিলেন ছোটে নবাব। এমনকি প্রকাশ্যে অমৃতাকে উদ্দেশ করে নাম না নিয়ে সইফ মিডিয়াকে বলেছিলেন, “আমার কোনও টাকা নেই। আমাকে প্রতি মাসে বিচ্ছেদ ভাতা দিতে হয়। রোজা এবং আমি দুই কামরার ছোট্ট ফ্ল্যাটে থাকি এখন। কিন্তু বিশ্বাস করুন, তাতে শান্তি রয়েছে। আমি কতটা অকর্মণ্য, আমার মা-দিদি কতটা খারাপ, তা প্রতিনিয়ত শুনতে আমার মোটেই ভাল লাগত না।”

এ হেন রোম্যান্সে ভাঁটা পড়ল কী করে? রোজাই সম্পর্ক ভেঙে ছিলেন। তাঁর অভিযোগ ছিল সেফ নাকি মিথ্যে বলেছেন তাঁকে। তাঁর যে আগে একটি বিয়ে এবং দুই সন্তান রয়েছে, সে কথা নাকি বেমালুম চেপে গিয়েছিলেন সইফ। ভারতে আসার পরেই নাকি রোজা জানতে পারেন সে কথা। সময়টা ২০০৬। ভেঙে যায় ওঁদের সম্পর্ক।

তবে প্রেম ছাড়েনি সইফকে। এর ঠিক দু’বছর পরেই ’তসন’ সিনেমার সেটে তিনি প্রেমে পড়েন কপূর-কন্যা করিনার। সেই প্রেমে এতটাই তীব্র ছিল যে, রাতারাতি হাতে ’করিনা’ ট্যাটু পর্যন্ত করিয়ে ফেলেছিলেন তিনি। করিনাও সাড়া দেন। অবশেষে চার বছর প্রেমের পর ২০১২ সালে বিয়ে করেন তাঁরা। ২০১৬-তে জন্ম হয় তৈমুরের। অমৃতার সঙ্গে সইফের যোগাযোগ না থাকলেও তাঁর প্রথম পক্ষের সন্তান সারা-ইব্রাহিমের কিন্তু সইফ-করিনার সম্পর্ক খুবই ভাল। একসঙ্গে ঘুরতেও যান তাঁরা। সময় কাটান। সে যাই হোক, সইফের জীবনে প্রেম এসেছে… প্রেম ভেঙেছে… এত ভাঙা গড়া পেরিয়ে আজ তিনি হ্যাপিলি ম্যারেড।

পাতৌদির ছোট নবাব হলেন সাইফ আলি খান ভারতের নামকরা এবং প্রভাবশালী বংশের সন্তান তিনি প্রতিপত্তি অর্থ বিত্ত কোন কিছুতেই কমতি নেই তার তবুও শখের বশে অভিনয়ে আসা হয়েছিল তার এবং নব্বইয়ের দশকের দিকে তিনি যখন অভিনয়ে আসেন তখন বেশ্ সারা পেয়েছিলেন অভিনয়ের মাধ্যমে দারুন দারুন কিছু সিনেমা দর্শকদের উপহার দিয়ে তাদের মন জিতে নিয়েছেন তিনি ব্যক্তিগত জীবনে এই অভিনেতার সাথে জড়িয়ে আছে অনেক নারীর নাম এবং তার জীবনে রয়েছে একাধিক বিবাহ তিনি

About Nusraat

Check Also

‘আমি কোনো ফকিরনি পরিবারের মেয়ে না’, নীলা চৌধুরীকে শাবনূর

চিত্রনায়ক সালমান শাহর মৃত্যুর ২৪ বছর পর পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *