Home / মিডিয়া নিউজ / ভালো কাজের জন্য অপেক্ষা করতেও রাজি

ভালো কাজের জন্য অপেক্ষা করতেও রাজি

চলতি সময়ের ব্যস্ত অভিনেত্রী কেয়া পায়েল। ঈদের নাটক ও অন্যান্য প্রসঙ্গ নিয়ে কথা বলেছেন তিনি।

সাক্ষাৎকার নিয়েছেন মোহাম্মদ তারেক ঈদ কেমন কাটালেন? পরিবারের সঙ্গে ঈদের দিন ভালো

কেটেছে। পরেরদিন বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরলাম। এখন তো লকডাউন শুরু হলো। বাসায় থাকছি। ১১ আগস্ট

থেকে কাজে ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে। ঈদের নাটকগুলোতে কেমন সাড়া পাচ্ছেন? ঈদে আমি ২০টি

নাটকে কাজ করেছি। সব নাটক ইউটিউবে এখনও আসেনি। টেলিভিশনেও প্রচার হয়নি। সেজন্য সবগুলোর প্রতিক্রিয়া পেতে সময় লাগবে। কিছু নাটকের চরিত্রে কাজ করে ভালো লেগেছে। যেমন স্বপ্নের নায়িকা, শুভ + নীলা ইত্যাদি। এখন পর্যন্ত প্রচার হওয়া কাজগুলো নিয়ে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়াই পেয়েছি।

লকডাউনের মধ্যে কাজের অভিজ্ঞতা কেমন ছিল?
ঈদের কাজ করার সময়ই লকডাউন পড়েছে। আউটডোরে ভালো কিছু কাজের কথা ছিল। সেগুলো হয়নি। ইনডোরে কাজ করতে হয়েছে। মাঝে তৌসিফ মাহবুব করোনায় আক্রান্ত হলেন। তার সঙ্গের কিছু কাজও বাতিল হয়ে গেল। তা ছাড়া আমি ইনডোরে এত কাজ করতে ইচ্ছুক নই। নাটক করে সংখ্যা বাড়িয়ে লাভ নেই। প্রয়োজনে ভালো কাজের জন্য অপেক্ষা করতেও রাজি আছি।

অবসর সময় কীভাবে কাটাচ্ছেন?
কাজ করে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলাম। এখন নিজের নাটকগুলো দেখছি। দর্শকের প্রতিক্রিয়া দেখছি। কারণ সব দেখে নিজেকে গুছিয়ে কাজের প্রস্তুতি নিতে হবে। নিজেকে ও পরিবারকে সময় দিচ্ছি।

নাটকে জুটি প্রথায় বিশ্বাস করেন?
নায়ক-নায়িকারা কারও সঙ্গে নিয়মিত কাজ করেন। আমারও কয়েকজনের সঙ্গে ধারাবাহিকভাবে কাজ করা হচ্ছে। আমি সমসাময়িকদের পাশাপাশি সিনিয়রদের সঙ্গেও কাজ করেছি। কাজ করার সময় জুটি নিয়ে হিসাব করি না। ভালো গল্প ও নির্মাতা পেলে কাজ করি। কার সঙ্গে জুটি হচ্ছে কার সঙ্গে হচ্ছে না এ প্রথায় বিশ্বাসী নই।

ওটিটি প্লাটফর্মে আপনাকে কবে দেখা যাবে?
আমার এখনও ওটিটিতে কাজ করা হয়নি। কাজের প্রচুর প্রস্তাব আসছে। এই লকডাউনের সময়টায় হাতে থাকা চিত্রনাট্যগুলো দেখব। ভালো চরিত্র, গল্প ও নির্মাতা পেলে এ প্লাটফর্মে কাজ করব। এ বছরই কাজ করার সম্ভাবনা আছে।
বিজ্ঞাপনে কম দেখা যাচ্ছে…
করোনা মহামারির জন্য বিজ্ঞাপনে সময় দেওয়া হয়নি। ঈদের আগে নাটক নিয়েই ব্যস্ত ছিলাম। দুটো ঈদ উপলক্ষে নাটকে এত ব্যস্ত থাকি বিজ্ঞাপনের জন্য সময় মেলাতে পারি না। তবে শিগগিরই বিজ্ঞাপনের কাজ করব।

সিনেমা নিয়ে কী ভাবছেন?
‘ইন্দুবালা’ ছবির কাজ শেষ করলাম। দেশের যে পরিস্থিতি তাতে সিনেমা নিয়ে খুব একটা ভাবছি না। আমি নাটকে নিজের অবস্থান আরেকটু সুদৃঢ় করে সিনেমায় কাজ করতে চাই।

সোশ্যাল মিডিয়ায় বুলিং বেড়েছে। বিষয়টি নিয়ে আপনার কী বক্তব্য?
আমি সাধারণ ছবি দিলেও দেখি কিছু বাজে মন্তব্য থাকে। কিছু মানুষ আছে যারা বুলিং করতে পছন্দ করে। এটা থামানো যাবে না। যারা অসুস্থ মানসিকতার তাদের তো বদলাতে পারব না। ওসব আমি দেখি না, এড়িয়ে চলি। তারপরও যদি কেউ বুলিং করে এটা তার মানসিক সমস্যা। প্রথমদিকে মন্তব্যগুলো মুছে ফেলতাম। পরে দেখলাম ওরা তো থামবে না। আমি নিজেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় যেভাবে উপস্থাপন করি; একজন অভিনেত্রী হিসেবে এর চেয়ে ভালোভাবে থাকা যায় না।

About Nusraat

Check Also

‘আমি কোনো ফকিরনি পরিবারের মেয়ে না’, নীলা চৌধুরীকে শাবনূর

চিত্রনায়ক সালমান শাহর মৃত্যুর ২৪ বছর পর পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *